পডকাস্ট কি এবং কিভাবে পডকাস্টিং করবেন?

আজকাল পডকাস্ট শব্দটি সোশ্যাল মিডিয়া নেটওয়ার্কে প্রচুর জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। কিন্তু পডকাস্ট কি? এটি সম্পর্কে খুব কম লোকই জানে। আপনিও যদি তাদের একজন হয়ে থাকেন তাহলে চিন্তা করবেন না। কারণ আজকের নিবন্ধে আমি পডকাস্ট কি এবং কীভাবে পডকাস্টিং করতে হয় সে সম্পর্কে তথ্য শেয়ার করব। যা পড়ার পর আপনি পডকাস্ট সংক্রান্ত সকল প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন।

যখনই কোন তথ্য ভিডিও বা লেখায় আপলোড করার পরিবর্তে সোশ্যাল মিডিয়ায় ঢোকানো হয়, তখন তাকে পডকাস্ট বলা হয় এবং এই প্রক্রিয়াটিকে পডকাস্টিং বলা হয়।

লোকেরা যেভাবে ভিডিও দেখতে এবং নিবন্ধ পড়তে পছন্দ করে, ঠিক একইভাবে মানুষ আজকাল পডকাস্ট আকারে তথ্য শুনতে পছন্দ করে।

পডকাস্ট শ্রোতার সংখ্যা ক্রমাগত বাড়ছে এবং গুগলে পডকাস্ট অনুসন্ধানকারী লোকের সংখ্যাও বাড়ছে। অতএব, আজকের নিবন্ধে, আমি আপনাকে পডকাস্ট সম্পর্কে বলব এবং পডকাস্টের অসুবিধা এবং সুবিধাগুলি সম্পর্কেও তথ্য শেয়ার করব। তো চলুন দেরি না করে পডকাস্ট সম্পর্কে জেনে নেই।

পডকাস্ট কি?

একটি পডকাস্ট হল একটি নির্দিষ্ট বিষয় বা থিমের উপর উচ্চারিত শব্দগুলির একটি ডিজিটাল অডিও ফাইল আকারে একটি সিরিজ। যা আমরা সহজেই অনলাইনে শুনতে পারি বা আমাদের ব্যক্তিগত ডিভাইস থেকে ডাউনলোড করতে পারি। এর জন্য পডকাস্ট পরিষেবা এবং অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করা হয়।

আপনি আপনার প্রিয় ব্লগ, শো, বা বিষয়গুলির রেকর্ডিং এক জায়গায় যে কোনো সময়, যে কোনো জায়গায় অনুসন্ধান করতে, শুনতে বা ডাউনলোড করতে পারেন৷ তারপরে এটি আপনার গাড়ি, কাজের জায়গা বা ওয়ার্কআউটের জায়গা হোক না কেন, আপনি যে কোনও জায়গায় পডকাস্ট শুনতে পারেন।

এর সংজ্ঞা অনুসারে, একটি পডকাস্ট হল একটি ডিজিটাল অডিও ফাইল যা একটি কম্পিউটার বা মোবাইল ডিভাইসের মাধ্যমে ইন্টারনেটে ডাউনলোডের জন্য উপলব্ধ করা হয়।

পডকাস্টগুলি নির্দিষ্ট বার্তা যতটা সম্ভব বেশি মানুষের কাছে ছড়িয়ে দিতে এবং একই ধরনের আগ্রহী লোকদের একটি সম্প্রদায় তৈরি করতে ব্যবহার করা হয়েছিল। কিন্তু আজকাল পডকাস্ট ব্যক্তি, কোম্পানি, রেডিও নেটওয়ার্ক, টিভি নেটওয়ার্ক, কৌতুক অভিনেতা, গল্পকার ইত্যাদি দ্বারা প্রকাশিত হয়।

ইউটিউব চ্যানেলের মতো, পডকাস্ট চ্যানেলগুলি সাবস্ক্রাইব করা যেতে পারে এবং নতুন পর্বগুলি এলে বিজ্ঞপ্তিগুলি পাওয়া যেতে পারে।

পডকাস্ট এ কোনো পূর্বনির্ধারিত দৈর্ঘ্য, বিন্যাস, শৈলী, উৎপাদন স্তর বা অন্য কিছু নেই। এতে, প্রতিদিন বা সপ্তাহে একবার, পডকাস্ট তৈরি করা ব্যাক্তির ইচ্ছা অনুযায়ী পর্বগুলি পডকাস্ট করা যেতে পারে।

পডকাস্ট কিভাবে কাজ করে?

যখন পডকাস্টের অস্তিত্ব ছিল না, তখন রেডিও ছিল একমাত্র মাধ্যম যেখানে আমরা অডিও শো শুনতাম। এমতাবস্থায় সাধারণ মানুষের পক্ষে তাদের রেডিও অনুষ্ঠান পরিচালনা করে বিপুল সংখ্যক মানুষের কাছে পৌঁছানো সম্ভব ছিল না। কয়েক দশক আগে, এর জন্য অনেক সংযোগের প্রয়োজন ছিল।

কিন্তু ইন্টারনেটের আবির্ভাবের পর, আপনি সহজেই আপনার রেডিও শো চালাতে পারেন এবং আপনার ভয়েস লক্ষ লক্ষ মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারেন।

যদিও পডকাস্টটি প্রথমে প্রযুক্তিগত সেটের মধ্যে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিল, পরে এটি সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছায়। আপনি ইন্টারনেটে যেকোনো একটি পডকাস্ট শুনতে পারেন এবং আপনার ইচ্ছা অনুযায়ী সঙ্গীত, খেলাধুলা ইত্যাদি সম্পর্কিত যেকোনো সামগ্রী ডাউনলোড করতে পারেন।

পডকাস্টিংয়ের মাধ্যমে ব্লগিংকে ডিজিটাল অডিও প্রযুক্তির সাথে একত্রিত করা যেতে পারে যা সামগ্রীর একটি অবিরাম সরবরাহ তৈরি করে।

পডকাস্টিং হল একটি বড় মাপের পরিষেবা যা ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের তাদের কম্পিউটার, মোবাইল ডিভাইস বা ব্যক্তিগত অডিও প্লেয়ারে পডকাস্টিং ওয়েবসাইট থেকে অডিও ফাইলগুলি (Mp3 ফর্ম্যাটে) শুনতে এবং ডাউনলোড করতে দেয়৷ এই শব্দটি আইপড এবং সম্প্রচারের সংমিশ্রণ থেকে তৈরি করা হয়েছে।

পডকাস্টগুলি চাহিদা অনুযায়ী ডাউনলোড করা যেতে পারে বা একটি RSS (Really Simple Syndication) ফিডের মাধ্যমে সদস্যতা নেওয়া যেতে পারে, যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার কম্পিউটার বা মোবাইল ডিভাইসে নতুন পডকাস্ট ডাউনলোড করে।

কিভাবে পডকাস্ট শুনবেন?

পডকাস্ট শোনা খুবই সহজ। আপনার যদি একটি স্মার্টফোন থাকে, তাহলে আপনাকে আপনার ফোনের অ্যাপ স্টোর থেকে একটি পডকাস্ট অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে। Spotify, Apple Podcast, Google Podcasts এবং Stitcher হল পডকাস্ট শোনার জন্য কিছু জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম যেখানে পডকাস্ট শোনা যায়।

আপনার তথ্যের জন্য, আমরা আপনাকে বলি যে পডকাস্ট শোনার পাশাপাশি, আপনি যদি এটি পছন্দ করেন তবে আপনি এটি ডাউনলোড করতে পারেন।

কিভাবে পডকাস্টিং করবেন?

পডকাস্ট করতে, আপনার একটি কম্পিউটার বা স্মার্টফোন থাকতে হবে যাতে ইন্টারনেট চলে। এর পরে, আপনাকে একটি পডকাস্ট প্ল্যাটফর্ম বেছে নিতে হবে যা ভাল কাজ করে। আপনি যদি আপনার কম্পিউটার থেকে পডকাস্টিং করতে চান, তাহলে আপনি নীচের ওয়েবসাইটগুলিতে যেতে পারেন।

  • Anchor.fm
  • Speaker.com
  • Podbean.com

অন্যদিকে, আপনি যদি আপনার স্মার্টফোন ব্যবহার করে পডকাস্টিং করতে চান, তাহলে আপনি এই প্ল্যাটফর্মের অ্যাপটি ডাউনলোড করতে পারেন। আপনি যদি প্রথমবার পডকাস্টিং করতে যাচ্ছেন, তাহলে অ্যাঙ্কর অ্যাপ দিয়ে চেষ্টা করুন, কারণ এই অ্যাপটি ব্যবহার করা খুবই সহজ এবং জনপ্রিয়।

এই প্ল্যাটফর্মগুলির ওয়েবসাইট বা অ্যাপে গিয়ে, আপনাকে সাইন আপ করতে এবং একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে বলা হবে। এরপর একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করার পরে, আপনি আপনার ভয়েস রেকর্ড করতে পারেন এবং আপনার পডকাস্ট আপলোড করতে পারেন৷

আপনি যদি বিস্তারিতভাবে পডকাস্টিং শিখতে চান তবে আপনি এটি ব্লগ বা ইউটিউবের মাধ্যমে শিখতে পারেন।

কোন বিষয়ে পডকাস্ট করবেন?

আপনি যদি বিভ্রান্ত হয়ে থাকেন কোন বিষয়ে পডকাস্ট করা উচিত, তাহলে এখানে আমি আপনাকে এমন কিছু বিষয় বলছি যার উপর আপনি আপনার পডকাস্ট শুরু করতে পারেন।

আপনি যদি পডকাস্ট তৈরির বিষয়ে সত্যিই আগ্রহী হন, তাহলে আপনার আগ্রহের বিষয় বেছে নিন। কারণ এটি করার মাধ্যমে, আপনি সহজেই দীর্ঘ সময়ের জন্য পডকাস্টিং করতে পারবেন এবং আপনি এটি মানুষকে ভালভাবে ব্যাখ্যা করতে পারবেন। লোকেরা যদি আপনার পডকাস্ট পছন্দ করে তবে আপনার শ্রোতার সংখ্যাও বাড়বে।

কিছু পডকাস্টিং বিষয়

  • খবর
  • প্রেরণাদায়ক গল্প
  • প্রেম কাহিনী
  • প্রযুক্তি
  • জীবন হ্যাক
  • বিনোদন
  • লাফিং শো
  • স্বাস্থ্য

পডকাস্ট এর ইতিহাস

পডকাস্ট 2004 সালে প্রাক্তন এমটিভি ভিডিও জকি অ্যাডাম কারি এবং সফ্টওয়্যার ডেভেলপার ডেভ উইনার দ্বারা তৈরি করা হয়েছিল।

অ্যাডাম কারি iPodder নামে একটি প্রোগ্রাম লিখেছিলেন যা তাকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে তার iPod এ ইন্টারনেট রেডিও সম্প্রচার ডাউনলোড করতে সক্ষম করেছিল।

এর পরে অনেক বিকাশকারী তার ধারণার উপর আরও কাজ করেছিলেন এবং তারপরে আনুষ্ঠানিকভাবে পডকাস্টিংয়ের জন্ম হয়েছিল। কারি নিজেই বেশ কিছু জনপ্রিয় পডকাস্ট হোস্ট করেছেন, যার মধ্যে সাম্প্রতিকতম হল নো এজেন্ডা নামে একটি শো।

পডকাস্ট তথ্য ও শিক্ষামূলক উদ্দেশ্যেও ব্যবহৃত হয়। যেমন স্ব-নির্দেশিত হাঁটা সফর, টক শো এবং প্রশিক্ষণ সবই পডকাস্টিংয়ের মাধ্যমে উপলব্ধ।

এখন পডকাস্টিং একটি লাভজনক ব্যবসা হয়ে উঠেছে। 2019 স্টেট অফ দ্য নিউজ মিডিয়া রিপোর্টে, পিউ রিসার্চ সেন্টার দেখেছে যে প্রায় 50 শতাংশ মার্কিন যুবক একটি পডকাস্ট শুনেছে।

পডকাস্টিং এর সুবিধা

১. সময় সংরক্ষণ

পডকাস্ট শোনার সবচেয়ে বড় সুবিধা হল সময় বাঁচানো। কারণ আপনি আপনার যেকোনো কাজ করার সময় পডকাস্ট শুনতে পারবেন এবং জ্ঞান নিতে পারবেন বা উপভোগ করতে পারবেন। উদাহরণস্বরূপ, আপনি গাড়ি চালানোর সময় বা রান্নাঘরে কাজ করার সময় বা জিম করার সময় যে কোনও জায়গায় পডকাস্ট শুনতে পারেন। এর জন্য আপনার কাজ বন্ধ করতে হবে না এবং সময়ও বাঁচবে।

২. ব্যাটারি এবং ডেটা সংরক্ষণ করা হয়

পডকাস্ট শোনার সময় ব্যাটারি এবং ডেটা উভয়ই সংরক্ষণ করা হয়। কারণ এতে ভিডিও কনটেন্টের তুলনায় বিদ্যুৎ খরচ অনেক কম হয় এবং ল্যাপটপ বা স্মার্টফোনের ব্যাটারি লাইফ বেড়ে যায়।

এছাড়াও, ভিডিও সামগ্রীর তুলনায় ডেটা খরচও খুব কম। যদি আপনার ফোনে ইন্টারনেটের গতি কম থাকে বা কম ডেটা থাকে, তাহলে আপনি পডকাস্ট শুনতে পারেন।

৩. অবসর সময়ের সদ্ব্যবহার

পডকাস্টের মাধ্যমে, আমরা তথ্য সংগ্রহ করতে পারি এবং আমাদের অবসর সময়ের ভালো ব্যবহার করে যে কোনো জায়গায় একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে জ্ঞান পেতে পারি।

আপনি অডিও ফর্ম্যাটে এই তথ্য পাবেন। এভাবে আমাদের সময়কে সঠিকভাবে কাজে লাগানো যায় এবং আমরা নতুন কিছু শিখতে পারি।

৪. কোনো নির্দিষ্ট সময়ের প্রয়োজন নেই

আপনি যে কোনও সময় যে কোনও জায়গায় এবং যে কোনও সময় পডকাস্টিং শুনতে পারেন। রেডিও বা টিভি অনুষ্ঠানের মতো নির্দিষ্ট সময়ে মানুষের টিউন বা টিউন করার দরকার নেই।

৫. পডকাস্ট খুবই সস্তা

বিজ্ঞাপনদাতা এবং পডকাস্টার উভয়ের জন্য পডকাস্ট ব্যয়বহুল নয়। এর সেটআপ এবং তৈরির খরচ অনেক কম। এজন্য পডকাস্ট ব্যবহার করে বিপুল সংখ্যক দর্শকের কাছে পৌঁছানো যায়, তাও স্বল্প খরচে।

পডকাস্টের অসুবিধা

১. ইন্টারনেট ছাড়া পডকাস্ট সম্ভব নয়

রেডিও শুনতে পাওয়ার ছাড়া আর কিছু লাগবে না। কিন্তু পডকাস্ট শুনতে পাওয়ারের সাথে সাথে ইন্টারনেটেরও প্রয়োজন হবে।

এর জন্য, আপনার স্মার্টফোন বা কম্পিউটারে একটি ডেটা প্ল্যান থাকা প্রয়োজন, যা আপনাকে পডকাস্ট শোনার জন্য ইন্টারনেট সরবরাহ করে। ইন্টারনেট ছাড়া পডকাস্ট শোনা সম্ভব নয়।

২. আইপি এবং বিষয়বস্তু রক্ষা করা একটি কঠিন কাজ

আপনার আইপি এবং বিষয়বস্তু অন্য কোনো পডকাস্টার দ্বারা অনুলিপি করা থেকে রক্ষা করা খুবই কঠিন। যে কেউ সহজেই আপনার বিষয়বস্তু পরিবর্তন করতে পারে এবং আপলোড করতে পারে। এই ধরনের ঘটনা সনাক্ত করা এবং নিয়ন্ত্রণ করা খুবই কঠিন। এটি জনপ্রিয় পডকাস্টার এবং প্রধান স্টুডিওগুলির জন্য একটি প্রধান মাথাব্যথা।

উপসংহার

আমি আশা করি আপনি পডকাস্ট কী এবং এটি কীভাবে ব্যবহার করবেন? আমার এই নিবন্ধটি  অবশ্যই পছন্দ করেছেন। যদি এখনো পডকাস্ট সম্পর্কে এখনও কিছু জানার থাকে তাহলে কমেন্ট করে আমাদের জানাতে পারেন।

এটি একটি বাংলা ব্লগ। এখানে আপনি বাংলা ভাষায় বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে কনটেন্ট পাবেন। যেগুলি আপনি প্রত্যেকদিন পড়ে নিয়ে, আপনার জ্ঞান এবং অভিজ্ঞতা বৃদ্ধি করতে পারেন।

Leave a Comment